মঙ্গলবার,২৮,মে,২০২৪
25 C
Dhaka
মঙ্গলবার, মে ২৮, ২০২৪
Homeখেলাধুলাশেষ মুহূর্তের গোলে মালদ্বীপে স্বস্তির ড্র বাংলাদেশের

শেষ মুহূর্তের গোলে মালদ্বীপে স্বস্তির ড্র বাংলাদেশের

খেলাধুলা প্রতিবেদন: মালেতে বৃহস্পতিবার ২০২৬ বিশ্বকাপের এশিয়া অঞ্চলের বাছাইয়ের প্রিলিমিনারি রাউন্ডে প্রথম লেগে মালদ্বীপের বিপক্ষে ১-১ ড্র করেছে বাংলাদেশ। নির্ধারিত সময়ের শেষ দিকে মালদ্বীপকে এগিয়ে নেন নাজিম হাসান, আর যোগ করা সময়ে সমতা ফেরান সাদ।

‘অনাকাঙ্ক্ষিত কাণ্ডে’ নিষিদ্ধ হওয়া নিয়মিত চার ফুটবলারের অনুপস্থিতিতে আগ্রাসী ফুটবলের পসরা মেলতে পারল না বাংলাদেশ। আক্রমণভাগে রাকিব হোসেন ও ফয়সাল আহমেদ ফাহিম হয়ে উঠতে পারলেন না ত্রাতা। তবে পোস্টের নিচে বিশ্বস্ত দেয়াল হয়ে ছিলেন মিতুল মার্মা। দুর্ভাগ্যের ফেরে তার প্রতিরোধও একসময় ভাঙল। তবে দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে সাদউদ্দিনের গোলে স্বস্তির ড্র নিয়ে ফিরল বাংলাদেশ। এএফসি কাপের ম্যাচে খেলে মালদ্বীপ থেকে ফেরার পথে বিমানবন্দরে ৬৪ বোতল মদ নিয়ে ধরা পড়েছিলেন বসুন্ধরা কিংসের পাঁচ ফুটবলার-আনিসুর রহমান জিকো, শেখ মোরসালিন, তপু বর্মন, রিমন হোসেন ও তৌহিদুল আলম সবুজ। সবুজ ছাড়া বাকি চার জনই জাতীয় দলে নিয়মিত খেলোয়াড়। কিংস অনির্দিষ্টকালীন নিষেধাজ্ঞা দেওয়ায় জাতীয় দলেও ব্রাত্য হয়ে পড়েন তারা। তাদের অনুপস্থিতিতে এদিন মাঠে শুরু থেকেই ভুগতে দেখা গেল বাংলাদেশ দলকে। জিকোর বদলে পোস্ট সামলানোর দায়িত্ব পাওয়া মিতুলের দৃঢ়তায় ও ভাগ্যের ছোঁয়ায় ১৮তম মিনিটে বেঁচে যায় বাংলাদেশ। সতীর্থের থ্রু পাস ধরে মালদ্বীপের আলি ফাসিরের কোনাকুনি শট মিতুলের গ্লাভস ছুঁয়ে পোস্টে লেগে ফিরে।

২৬তম মিনিটে সতীর্থের লং পাসে বল পান রাকিব। গায়ের সঙ্গে সেঁটে থাকা মালদ্বীপ ডিফেন্ডার আহনাফ রাশিদকে শরীরের মোচড়ে কাটিয়ে জায়গা করে শটও নেন, কিন্তু বল যায় পোস্টের বাইরে দিয়ে। ৩৫তম মিনিটে কর্নারে রাকিবের হেড অল্পের জন্য বাইরে যায়। ৪০তম মিনিটে ফাহিমের ভলিও হয় লক্ষ্যভ্রষ্ট। ৬৪তম মিনিটে হামজা মোহাম্মদের ক্রস সাকিল হোসেন ক্লিয়ার করতে গিয়ে বল জালে জড়াতে বসেছিলেন; ভাগ্য ভালো, বল যায় ক্রসবারের উপর দিয়ে। একটু পর ইব্রাহিম হুসেনের কোনাকুনি শট বেরিয়ে যায় দূরের পোস্ট দিয়ে।

বদলি নামার পরই মালদ্বীপ গোলরক্ষকের পরীক্ষা নেন রবিউল হাসান। ৭৪তম মিনিটে শরীর ঘুরিয়ে নেওয়া এই মিডফিল্ডাররের শট অনেকটা লাফিয়ে আটকান শরিফ হোসেন। দুই মিনিট পর ফের মিতুলের দৃঢ়তায় বেঁচে যায় বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষর থ্রু পাস আটকাতে পারেনি রক্ষণভাগের কেউ। বল পেয়ে যান আলি ফাসির। মালদ্বীপ অধিনায়কের শট ছুটে এসে পথ আগলে দাঁড়িয়ে রুখে দেন গোলরক্ষক। ৮৭তম মিনিটে পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ। ডান দিক থেকে উড়ে আসা ক্রস ক্লিয়ার করতে হেড দিয়েছিলেন কাজী তারিক রায়হান। বল তার সামনে থাকা শাকিলের গায়ে লেগে চলে যায় নাজিমের পায়ে। নিখুঁত শটে সুযোগ কাজে লাগান মালদ্বীপের এই ফরোয়ার্ড।

হারের মুখ থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে ড্রয়ে শেষ করতে পারার উচ্ছ্বাস বাংলাদেশ দলে সবার চোখে-মুখে। এর দুই মিনিট পর রাকিবকে তুলে সাদকে নামান বাংলাদেশ কোচ হাভিয়ের কাবরেরা। দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে ডিফেন্ডার সাদ-ই স্বস্তি এনে দিলেন। সতীর্থের ক্রস গোলমুখে পেয়ে ঠাণ্ডা মাথায় দারুণ টোকায় জাল খুঁজে নেন তিনি।

২০১৯ সালে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে কলকাতার সল্ট লেকে ভারতের বিপক্ষে জাতীয় দলের হয়ে প্রথম গোল করেছিলেন সাদ। চার বছর পর দ্বিতীয় গোলের দেখা পেলেন তিনি।গত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে পিছিয়ে পড়ে মালদ্বীপকে ৩-১ গোলে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। এবার হারাতে না পারলেও অন্তত ড্রয়ের স্বস্তি সঙ্গী হয়েছে দলের। আগামী ১৭ অক্টোবর ফিরতি লেগে ঢাকায় মুখোমুখি হবে দুই দল।

সর্বশেষ