29 C
Dhaka
শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১

অনলাইন টিভি

Bangladesh
1,549,553
কোভিড-১৯ সর্বমোট আক্রান্ত
Updated on September 25, 2021 5:45 AM
Homeজাতীয়কারখানা চালুর ঘোষণা বিবেচনাহীনতা ও হটকারিতাপূর্ণ: ওয়ার্কার্স পার্টি

কারখানা চালুর ঘোষণা বিবেচনাহীনতা ও হটকারিতাপূর্ণ: ওয়ার্কার্স পার্টি

নতুন কথা রিপোর্ট : দেশে করোনা অতিমারী আশংকাজনক মাত্রায় বৃদ্ধি পাওয়ায় তা ঠেকাতে সরকার বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে গত ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত সারাদেশে ১৪ দিনের লকডাউন দিয়ে আকস্মিকভাবে একদিনের নোটিশে গত ১ আগস্ট থেকে রপ্তানীমুখি শিল্প বিশেষ করে গার্মেন্টস ফ্যাক্টরী চালুর ঘোষণা দেয় যা, পুর্বাপর বিবেচনাহীনতা ও হটকারিতাপুর্ণ এবং লকডাউনের নামে জনগণের সাথে লুকোচুরি খেলা।’
সোমবার (০২ অাগস্ট) বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি জননেতা কমরেড রাশেদ খান মেননের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পার্টির পলিটব্যুরোর ভার্চুয়াল সভায় এই প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়।
পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশার উপস্থাপনায় ‘করোনা মহামারী পরিস্থিতি ও পাটির করোনা সেচ্ছাসেবক ব্রিগ্রেড সমুহের কাজের পর্যালোচনা’ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা শেষে পলিটব্যুরো প্রস্তাব গ্রহণ করেন।
সভার প্রস্তাবে বলা হয়, অবস্থাদৃষ্টে এটা প্রতিয়মান হয় যে, কঠোর লকডাউনের প্রজ্ঞাপন দিয়ে আবার রপ্তানীমুখি শিল্পের মালিকদের চাপে ১লা জুলাই থেকে কারখানা চালুর ঘোষণা করোনা অতিমারীরোধ ব্যাহত ও বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরী করার শামীল। এতে মনে হয়, সরকার সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগছেন বা করোনা মহামারী রুখতে আন্তমন্ত্রনালয় কোন সমন্বয় নেই। সরকারের এই বিবেচনাহীন সিদ্ধান্তকরোনা সংক্রমন ও মৃত্যুর মিছিলকে আরো প্রলম্বিত করবে। অন্যদিকে করোনা অতিমারীর আতংকজনক পরিস্থিতিতে আকস্মিককারখানা খুলে দেয়ার ঘোষণায় গ্রামে চলে যাওয়া উদ্বিগ্ন শ্রমিকদের দুরদুরান্ত থেকে কাজে যোগদানে পরিবহনের ব্যবস্থা না করে তাদের অবর্ণনীয় দূর্ভোগের মধ্যে ঠেলে দেয়া হয়েছিল তা অমানবিকতার চুড়ান্ত।
সভার অপর প্রস্তাবে, পার্টি উদ্যোগে কেন্দ্রসহ বিভিন্ন জেলায় করোনা মোকাবেলায় গড়ে উঠা ‘সেচ্ছাসেবক ব্রিগেড’ সমুহের কাজের পর্যালোচনা করে বলা হয় নিজস্ব সামর্থ বাড়িয়ে জনগণকে সম্পৃক্ত করে জনসচেতনতা বৃদ্ধির কাজে পার্টি ও গণসংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মিদের আরো বেশী সক্রিয় হতে হবে। একই সাথে প্রান্তিক পর্যায়েমানুষকে টিকা গ্রহণে উদ্বুদ্ধ ও রেজিষ্ট্রেশনের ব্যবস্থা করার জন্য কর্মীদের আহবান জানানো হয়।
সভার শুরুতে প্রখ্যাত গণসংগীত শিল্পী ফকির আলমগীর ও পার্টি ঢাকা মহানগর কমিটির সদস্য কমরেড এনামুল হক লাবুর মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়।
আলোচনায় অংশ নেন কমরেড আনিসুর রহমান মল্লিক, কমরেড সুশান্ত দাস, কমরেড মাহমুদুল হাসান মানিক, কমরেড নুর আহমেদ বকুল, কমরেড কামরূল আহসান, কমরেড এনামুল হক এমরান, কমরেড আমিনুল ইসলাম গোলাপ, কমরেড হাজী বশিরুল আলম, কমরেড জ্যোতি শংকর ঝন্টু, কমরেড নজরুল ইসলাম হাক্কানী প্রমুখ।

সর্বশেষ