29 C
Dhaka
শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১

অনলাইন টিভি

Bangladesh
1,549,553
কোভিড-১৯ সর্বমোট আক্রান্ত
Updated on September 25, 2021 5:45 AM
Homeজাতীয়রূপসায় হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘর-মন্দির ভাঙচুর

রূপসায় হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘর-মন্দির ভাঙচুর

ঊষার আলো প্রতিবেদক : খুলনার রূপসা উপজেলায় কীর্ত্তণ গানকে কেন্দ্র করে একটি গ্রামে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে হামলা ও মারধরে ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বেশকিছু পারিবারিক মন্দির ও প্রতিমা ভাঙচুর ঘটে। এ নিয়ে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

শনিবার (৭ আগস্ট) সন্ধ্যা ৬টার দিকে উপজেলার শিয়ালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পূজা উদযাপন কমিটির নেতারা অভিযোগ করেছেন, হামলাকারীদের হাতে নারীরাও মারধরের শিকার হন। একই সাথে লুটপাট চালানো হয়েছে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, শুক্রবার (৬ আগস্ট) রাত ৯টার দিকে একটি কীর্ত্তণ দল শিয়ালী গ্রামের কীর্ত্তণ পরিবেশনকালে মসজিদ সংলগ্ন রাস্তা অতিক্রম করছিল। এমন সময় কয়েকজন মুসল্লী নামাজের সময় কীর্ত্তণ গান করতে বাঁধা দেয়। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। সকালে বিষয়টি পূজা উদযাপন কমিটির নেতারা স্থানীয় পুলিশ ফাঁড়ি ও থানা পুলিশকে তারা উভয় পক্ষের সাথে কথা বলেন। রবিবার (৭ আগস্ট) এ ঘটনা নিয়ে বৈঠকের কথা ছিল।

শনিবার (৬ আগস্ট) সন্ধ্যা ৬টার দিকে রূপসা উপজেলা সংলগ্ন তেরখাদা উপজেলার শেখপুরা, রূপসার ঘাটভোগ এলাকার কয়েকশ’ ব্যক্তি লাঠিসোঠা নিয়ে শিয়ালী গ্রামের পূর্বপাড়া, শশ্মানঘাট, বামনডাঙ্গা, চাঁদপুর এলাকায় হামলা চালায়। এ সময় ৭টি মন্দির, প্রতিমা ও বাড়িঘর ভাঙচুর, নারী-পুরুষদের মারধরের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

স্থানীয় পূজা কমিটির নেতা শক্তিপদ বসু এ প্রতিবেদককে জানান, তুচ্ছ ঘটনায় হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। আমরা বিষয়টি সকালে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীকে জানিয়েছিলাম। এ ঘটনার সাথে বহিরাগতরা জড়িত। আমরা সুবিচার চাই।
খুলনার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান সাংবাদিকদের বলেন, রূপসায় একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার রাতে ঘটনা নিয়ে বৈঠক হওয়ার আগেই এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখছে।

এদিকে এ ঘটনার পর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। অতিরিক্ত পুলিশ-র‌্যাব ও আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

সর্বশেষ