বুধবার,১৯,জুন,২০২৪
29 C
Dhaka
বুধবার, জুন ১৯, ২০২৪
Homeসীমানা পেরিয়েনিরাপদ পানি সংকটে দক্ষিণ এশিয়ার ৮ দেশের শিশুরা

নিরাপদ পানি সংকটে দক্ষিণ এশিয়ার ৮ দেশের শিশুরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ॥ জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে বিশ্বের অন্য যেকোনো জায়গার চেয়ে দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলে নিরাপদ পানি সংকট দিন দিন বাড়ছে। এ কারণে শিশুরা ভয়ংকর পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তন বৃষ্টিপাতকে ব্যাহত করছে। অতিসম্প্রতি প্রকাশি জাতিসংঘের শিশু সংস্থা ইউনিসেফের অন্য এক প্রতিবেদনে একথা বলা হয়েছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়, দক্ষিণ এশিয়ার ৮ দেশে (আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, নেপাল, মালদ্বীপ, পাকিস্তান, শ্রীলংকা) বিশ্বের এক-চতুর্থাংশেরও বেশি শিশু রয়েছে। এসব দেশে ১৮ বছরের কম বয়সি ৩৪৭ মিলিয়ন শিশু ব্যাপকভাবে পানির ঘাটতির সম্মুখীন। এটি সংখ্যার দিক দিয়ে বিশ্বের অন্য সব অঞ্চলের মধ্যে সর্বোচ্চ।
প্রতিবেদনে পানির নিম্ন গুণগতমান, পানির অভাবসহ অব্যবস্থাপনার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এমনকি জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে পানির উৎসও কমে যাচ্ছে। ইউনিসেফ আরো বলেছে, গ্রামের কূপগুলো যখন শুকিয়ে যায়, তখন ঘরবাড়ি, স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং স্কুল- সবই ক্ষতিগ্রস্ত হয়। জলবায়ুর ক্রমবর্ধমান অপ্রত্যাশিত সংকটসহ দক্ষিণ এশিয়ায় শিশুদের পানির ঘাটতি সামনের দিনগুলোতে আরো খারাপ হবে।
ডিসেম্বর মাসে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে জাতিসংঘের কপ-২৮ জলবায়ু সম্মেলন হবে। এতে অংশ নেওয়া নেতাদের ‘ পৃথিবীকে বাসযোগ্য ও নিরাপদ রাখার’ আহ্বান জানাবে ইউনিসেফ।
দক্ষিণ এশিয়ায় ইউনিসেফের প্রধান বলেছেন, ‘নিরাপদ পানি পাওয়ার বিষয়টি একটি মৌলিক মানবাধিকার। তবুও দক্ষিণ এশিয়ার লক্ষাধিক শিশুর জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ক্রমবর্ধমানভাবে উদ্ভূত বন্যা, খরা এবং অন্যান্য বিপর্যয়কর আবহাওয়ার কারণে পান করার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি নেই।’ এর আগে গত বছর দক্ষিণ এশিয়ায় ৪৫ মিলিয়ন শিশুর মৌলিক খাবার পানীয়ের অভাব ছিল এবং সেটিও ছিল বিশ্বের অন্য যে কোনো অঞ্চলের তুলনায় বেশি। এই ধরনের সংকট দ্রুত প্রসারিত হচ্ছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর পর পূর্ব এবং দক্ষিণ আফ্রিকার দেশগুলো রয়েছে। এখানে ১৩০ মিলিয়ন শিশু পানির সংকটে পড়ার ঝুঁকিতে রয়েছে।

সর্বশেষ