মঙ্গলবার,২৮,মে,২০২৪
29 C
Dhaka
মঙ্গলবার, মে ২৮, ২০২৪
Homeজাতীয়ফিলিস্তিনি জনগণের ওপর বর্বরতা ও হত্যাযজ্ঞ বন্ধ কর:মেনন

ফিলিস্তিনি জনগণের ওপর বর্বরতা ও হত্যাযজ্ঞ বন্ধ কর:মেনন

“শিশু-নারীসহ নির্বিচারে ফিলিস্তিনী জনগণকে হত্যার দায়ে যুদ্ধাপরাধী হিসেবে ইসরাইলী প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুকে আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারে করতে হবে। সারাবিশে^র মানুষের আহবানকে উপেক্ষা করে বর্বর ইসরাইলী বাহিনী অবরুদ্ধ গাজাবাসীকে যেভাবে হত্যা করছে তা মানবতায় চরম লংঘন। জাতিসংঘকে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করায় আহবান জানিয়েছেন কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি”
ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রই একমাত্র সমাধান, জায়নবাদী বর্ণবাদী ইসরাইল নিপাত যাক, ফিলিস্তিনে নির্বিচারে শিশু-নারীসহ গণহত্যার বন্ধের দাবিতে দেশব্যাপী ঘোষিত “কালো পতাকা দিবস” এর অংশ হিসেবে আজ ১১ নভেম্বর ২০২৩ শনিবার বিকাল ৩:৩০ মিনিটে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির উদ্যোগে সমাবেশ ও কালো পতাকা মিছিল পূর্ব সমাবেশে ভার্চুয়াল মাধ্যমে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কমরেড রাশেদ খান মেনন একথা বলেন।
পার্টির আন্তর্জাতিক বিভাগের ইনচার্জ ও পলিটব্যুরোর সদস্য কমরেড আলী আহমেদ এনামুল হক এমরান সভাপতিত্বে ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আহবায়ক কমরেড কিশোর রায়ের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন পলিটব্যুরোর সদস্য কমরেড নুর আহমদ বকুল, কমরেড কামরূল আহসান, কমরেড মুস্তফা লুৎফুল্লাহ এমপি, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড আবুল হোসাইন, কমরেড আবুল হোসাইন, কমরেড মোস্তফা আলমগীর রতন, কমরেড সাব্বাহ আলী খান কলিন্স, ঢাকা মহানগর উত্তরের আহবায়ক কমরেড সাদাকাত হোসেন খান বাবুল, বাংলাদেশ যুব মৈত্রীর সভাপতি কমরেড তৌহিদুর রহমান, ছাত্রমৈত্রীর সাধারণ সম্পাদক অদিতি আদৃতা সৃষ্টি প্রমুখ।


সমাবেশে বক্তারা বলেন, মানব ইতিহাসের জঘন্যতম হত্যাকান্ড চলছে ফিলিস্তিনি জনগণের ওপর। দ্বিতীয় বিশ^যুদ্ধে নাৎসী বাহিনী কর্তৃক যেভাবে ইহুদিরা হলোকাস্টে হত্যার স্বীকার ও অত্যাচারিত হয়েছিল আজ তারাই ফিলিস্তিনী জনগণের ওপর অত্যাচারি ও নিপীড়কের ভূমিকায়। ফিলিস্তিনিরা আজ নিজভূমে পরবাসী। বক্তারা অবিলম্বে ইসরাইলী বাহিনী কর্তৃক নির্বিচারে ফিলিস্তিনী শিশু-নারীসহ, গণহত্যাকা-ের তীব্র নিন্দা জানিয়ে তা বন্ধের জোর দাবি জানান। একই সাথে তারা উল্লেখ করেন, স্বাধীন ফিলিস্তিনী রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠাই এই সমস্যার একমাত্র সমাধান হতে পারে।
সমাবেশে শেষে একটি কালো পতাকা মিছিল কদমফোয়ারা, পুরানো পল্টন মোড়, জিরো পয়েন্ট, গোলাপশাহ মাজার হয়ে আবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দিয়ে পার্টি কার্যালয় এসে শেষ হয়।

সর্বশেষ