26 C
Dhaka
শনিবার, এপ্রিল ১৭, ২০২১

অনলাইন টিভি

Bangladesh
711,779
কোভিড-১৯ সর্বমোট আক্রান্ত
Updated on April 17, 2021 4:54 AM
Homeসীমানা পেরিয়েভারতসামনের মাসে আমেরিকা-ব্রাজিলকেও ছাড়িয়ে যাবে ভারত!

সামনের মাসে আমেরিকা-ব্রাজিলকেও ছাড়িয়ে যাবে ভারত!


আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
 প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের বিষাক্ত ছোবলে ইতোমধ্যে বিশ্বব্যাপী ১ কোটি ৪৪ লাখ ২২ হাজার ৪৬৮ মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৪ হাজার ৮২৩ জনের।

প্রাণঘাতী এই ভাইরাস আমেরিকা, ব্রিটেন, ইতালি, স্পেন, ফ্রান্স ও ব্রাজিলে রীতিমতো ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে। এর তাণ্ডবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে এই রাষ্ট্রগুলো।

বর্তমানে হটস্পটে করোনার হটস্পটে পরিণত হয়েছে এশিয়ার দেশ ভারত। এরই মধ্যে দেশটিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লাখ ৭৭ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। মৃত্যু হয়েছে ২৬ হাজার ৮২৮ জনের।

ভারতে প্রতিদিন যেভাবে লাগামছাড়া আক্রান্তের সংখ্যা হু হু করে বেড়ে চলেছে তাতে ভবিষ্যৎ এর জন্য আরও বড় অশনি সংকেত বয়ে আনবে এই ভাইরাস, এমনটাই জানাচ্ছেন গবেষকরা। শুধুতাই নয়, আগামী সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে ভারত করোনা আক্রান্তের শীর্ষে পৌঁছে যাবে। অতিক্রম করতে পারে আমেরিকা এবং ব্রাজিলের রেকর্ড সংক্রমণকেও। আর সেক্ষেত্রে দেশটির সরকার এবং জনগণ আরও বেশি কঠোর ও সচেতন না হলে পরিস্থিতি আরও ভয়ানক হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

এ বিষয়ে ভারতীয় জনস্বাস্থ্য বিভাগের প্রেসিডেন্ট তথা আইসিএমআর’এর কার্ডিওলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক কে. শ্রীনাথ রেড্ডি জানিয়েছেন, প্রতিদিন যেভাবে দেশে করোনার জীবাণু ছড়াচ্ছে তাতে সরকার যদি আরও কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ না করে তাহলে ফল আরও ভয়ানক হবে। শুধু সরকারই নয় করোনা সম্পর্কে সাধারণ মানুষজনকে হতে হবে। মানতে হবে সরকারি নিষেধাজ্ঞা। তবেই কিছুটা হলেও রোধ করা যাবে করোনার প্রকোপ।

সংবাদ সংস্থা পিটিআই-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি আরও বলেন,” ভারতজুড়ে যেভাবে সংক্রমণের হার বাড়ছে তাতে আমাদের উচিত সরকারি নির্দেশিকা সঠিকভাবে পালন করা এবং সংক্রমণের শিকল (চেইন) ভাঙতে সহায়তা করা।”

তিনি আরও বলেন, “গত মার্চ মাসের পর থেকে ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে পৃথক পৃথক সময়ে সংক্রমণের হার বেড়েছে। শুধু তাই নয়, ভারতে মে মাসের আনলক-১ পর্ব থেকে সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। এর ফলে গত দুই মাসে ভারতজুড়ে হু হু করে বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যা। লকডাউন পর্বেও কিছু অসচেতন নাগরিকদের জন্য ভাঙা যায়নি সংক্রমণের শিকল। বরং দিন যত এগোচ্ছে ততই মাথাচাড়া দিচ্ছে লাগামহীন সংক্রমণ।

সর্বশেষ

×

আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ